তৈলাক্ত ত্বকের জন্য কোন ফেসওয়াস ভালো

আসসালামু আলাইকুম প্রিয় পাঠক। আপনি যদি একজন ছেলে হন তাহলে আজকের আর্টিকেলটি আপনার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে। আশা করি আপনি জানতে চাচ্ছেন ছেলেদের তৈলাক্ত ত্বকের জন্য কোন ফেসওয়াস ভালো। তো আজকেরে আর্টিকেলটিতে আমরা ছেলেদের তৈলাক্ত ত্বকের জন্য কোন ফেসওয়াস ভালো হবে এটা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব।

Facewas

তো আপনি যদি জানতে চান ছেলেদের ছেলেদের তৈলাক্ত ত্বকের জন্য কোন ফেসওয়াস ভালো। তাহলে আপনি আজকের এই আর্টিকেলটি বিস্তারিত পরতে পারেন। আর্টিকেলটি যদি আপনি সম্পূর্ণ পড়েন তাহলে আশা করি বুঝতে পারবেন ছেলেদের তৈলাক্ত ত্বকের জন্য কোন ফেসওয়াশ ভালো হবে। তো চলুন শুরু করা যাক এবং জেনে নেই ছেলেদেরকে ত্বকের জন্য কোন ফেসওয়াস ভালো হবে।

ভূমিকাঃ ছেলেদের তৈলাক্ত ত্বকের জন্য কোন ফেসওয়াস ভালো

আপনি যদি একজন ছেলে হন তাহলে আপনার চেহারা বা আপনার ত্বক অত্যন্ত তৈলাক্ত হয়। আজকের এই আর্টিকেলটিতে আমরা ছেলেদের তৈলাক্ত ত্নক নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। আশা করি আপনি ছেলেদের তৈলাক্ত ত্বক সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন। 

ছেলেদের ত্বক খুব তাড়াতাড়ি তৈলাক্ত হয়ে যায় বেশি। তো আজকের আর্টিকেলটিতে আমরা এটা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব এবং আরো আলোচনা করব ছেলেদের ত্বকের জন্য কোন ফেসওয়াশ ভালো হবে, ছেলেদের ত্বক তৈলাক্ত হয় কেন, আপনার জন্য কোন ফেসওয়াশ উপযোগী এবং মৌসুম ভেদে ফেসওয়াশ চেঞ্জ করবো কিনা। আজকের আর্টিকেলটি আপনি সম্পূর্ণ পড়লে বিস্তারিত বুঝতে পারবেন। তো চলুন আজকের আর্টিকেলটি শুরু করা যাক। এবং জেনে নিই এর বিস্তারিত।

ছেলেদের তৈলাক্ত ত্বকের জন্য কোন ফেসওয়াস ভালো

বেশির ভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায় ছেলেরা দিনের বেশিরভাগ সময়ই দেখা যায় বাইরে থাকে। এর ফলে ছেলেদের ত্বকে বাইরের ধুলাবালি, বিভিন্ন ধরনের ব্যাকটেরিয়া, এবং রোদের তাপে চেহারা অনেকটাই তৈলাক্ত হয়ে যায়। ছেলেদের ত্বক রোদে পুড়ে বাইরের ধুলাবালি লেগে এবং অনেকটা টেনশনে বা তীব্র ডিপ্রেশন বা চিন্তার কারনে অনেকটা তৈলাক্ত হয়ে যায়। 

কিন্তু অধিকাংশ ছেলেদের ক্ষেত্রেই দেখা যায় যে। তাদের চেহারার তেমন কোনো যত নেওয়া হয় না বা নিজের চেহারা নিয়ে এখনো চিন্তাও করা হয় না যার ফলে প্রতিদিন ত্বকের মধ্যে বিভিন্ন ধরনের ধুলাবালি ও ব্যাকটেরিয়া অনেকদিন যাবত জমা হওয়ার কারনে চেহারা/ত্বকের অনেকটা ক্ষতি হতে পারে। তো চলুন জেনে নেই আমরা আমাদের ত্বকের যত্নে ব্যবহার করতে পারি এবং আমাদের স্কিন ভালো রাখতে পারি।

পন্ডস

আমাদের মধ্যে অনেকই পন্ডস মেন্স ফেসওয়াস টি ভালো করে না জেনেই ব্যবহার করা শুরু করে দেই। যেকোনো ফেসওয়াশ ব্যবহার করার পূর্বে ই সেটা সম্পর্কে আমাদের ভালো করে জেনে নেওয়া উচিত। কেননা একটি ভুল ফেসওয়াশ ব্যবহারের ফলে আমাদের ত্বকের অনেক বড় একটি ক্ষতি হয়ে যেতে পারে। তো চলুন জেনে নেই পন্ডস মেন্স ফেসওয়াশ এর বিস্তারিত তথ্য এবং কিভাবে ব্যবহার করতে হবে।

ছেলেদের দিনের বেশিরভাগ সময়ে বাইরে কাটাতে হয় এবং ধুলাবালির মধ্যে মধ্যে থাকা লাগে। অনেক সময় দেখা যায় অনেক ছেলেদের বাইরে ধুলাবালি মধ্যে কাজ করতে হয় । সেই ধুলাবালি এবং উত্তপ্ত রোদে চেহারাটা অনেকটা তৈলাক্ত হয়ে যায়। এই এই ফেসওয়াশ টা ব্যবহারের ফলে আপনাদের ত্বকের অতিরিক্ত তৈলাক্ত ভাব দূর হবে এবং চেহারার গভীরে গিয়ে ধুলোবালি পরিষ্কার করবে। তাছাড়া এফ ফেসওয়াশ টি আপনার মুখে উজ্জ্বল করতে সহায়তা করবে এবং এটি ব্যবহারের পর কিছুক্ষণ বা অনেক সময় আপনার ত্বকে ঠান্ডা অনুভব হবে। কারণ এই ফেসওয়াসটিতে আইস ক্রিস্টাল কুলিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে। 

তবে লক্ষ্য রাখতে হবে এটি সব স্ক্রিনের জন্য উপযোগী নয় এটা শুধুমাত্র অতিরিক্ত তৈলাক্ত ত্বকের জন্য ব্যবহার উপযোগী। আরেকটি বিষয় হচ্ছে যাদের ব্রণ আছে তাদের জন্য উপযোগী নয়। কারণ এই ফেসওয়াশটা যেহেতু ত্বকের একদম গভীরে গিয়ে ময়লা পরিষ্কার করে সেক্ষেত্রে ব্রণের কিছুটা ক্ষতি হতে পারে।

নেভিয়া ম্যান অল ইন ওয়ান

নিভিয়া মেন অল ইন ওয়ান ফেসওয়াস টি শুধুমাত্র সেসব পুরুষদের জন্য জন্য যাদের ত্বক একদম অতিরিক্ত তৈলাক্ত। এতে রয়েছে মুখের অতিরিক্ত তেলকে নিয়ন্ত্রণ করার পদ্ধতি। 

তাছাড়া এটি যাদের ব্রণের সমস্যা রয়েছে তাদের ক্ষেত্রে অনেকটা কার্যকরী হবে। কারণ এই ফেসওয়াস ব্যবহারের ফলে আমাদের ত্বকে ব্রণ উৎপাদনকারী ব্যাকটেরিয়া অনেকটাই ধ্বংস হয়ে যাবে। আপনার যদি ব্রণ থেকে থাকে সেক্ষেত্রে আপনি এই ফেসওয়াশটা ব্যবহারের মাধ্যমে অনেক ভালো একটি ফলাফল পেতে পারেন। তাছাড়াও যাদের মুখে বা তকে কালো দাগ স্পট রয়েছে তাদের সেই কালো দাগ বা স্পট দূর করতে এই ফেসওয়াস টা অনেকটাই কার্যকরী।

নেভিয়া ম্যান অল ইন ওয়ান ফেসওয়াশ ব্যবহার করার সময় খুব সতর্কতার সহিত ব্যবহার করবেন। কেননা এতে এমন কিছু উপাদান রয়েছে যা আমাদের চোখের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর হতে পারে।

হিমালয়া ম্যান নিম ফেসওয়াশ

আশা করি নাম শুনেই বুঝে গেছেন তাতে নিম ব্যবহার করা হয়েছে। আমরা সকলেই জানি নিম একটি প্রাকৃতিক উপাদান এবং অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল হিসেবে নিয়মের অনেক গুণ রয়েছে। এই ফেসওয়াশ টিতে প্রধান উপাদান হিসেবে নিমকে ব্যবহার করা হয়েছে। 

তাছাড়া এই ফেসওয়াশটিতে ব্যাবহার করা হয়েছে সেলিসেলিক এসিড। এই এসিড আপনার ত্বকের ব্রণ কে ৯০% পর্যন্ত ধংস করতে সক্ষম। এই এসিড যুক্ত ফেসওয়াশ ব্যাবহার এর ফলে ছেলেদের ত্বকের লাল রঙের যে বর্ণগুলো আছে সেগুলা অনেকটাই দূর করা সম্ভব। আর যাদের অলরেডি ব্রণ হয়ে আছে হয়ে আছে এবং সেটা অতিরিক্ত পরিমাণে বেড়ে যাচ্ছে কিন্তু আপনি নিয়ন্ত্রণ করতে পারছেন না। তাহলে আপনি হিমালয়া ম্যান নিম ফেসওয়াসটি ব্যবহার করতে পারেন। এর ফলে আপনার তকে আর নতুন করে ব্রণ সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়া বৃদ্ধি হবে না।

এই ফেসওয়াস টি প্রায় সব ত্বকের জন্য পারফেক্ট। কিন্তু এর একটি দিক আমার কাছে ঠিক মনে হয় নাই সেটা হলো এটা অতিরিক্ত পরিমাণে ব্যবহারের ফলে আপনার ত্বকের যে কোন জায়গাকে ড্রাই করে দিতে পারে। তবে সব থেকে ভালো হয়, এই ফেসওয়াশ টি আপনি অল্প পরিমাণে হাতে নিয়ে ব্যবহার করলে আপনার তৈলাক্ত ত্বকের সমস্যার সমাধান পেতে পারেন।

গার্নিয়ার ম্যান এট্নো ফাইট ফেইসওয়াশ

এটার সব থেকে ভালো দিক হলো এই ফেইসওয়াশ টা সকলেই নিজেদের ত্বক এ ব্যাবহার করতে পারবে। এটা ত্বকের কিছু ক্ষতিকর দিক যেমন মুখের অতিরিক্ত ব্রণ এবং হালকা থেকে মাঝারি গর্ত। এগুলা সমস্যার সমাধাব করতে গার্নিয়ার ম্যান এট্নো ফাইট ফেইসওয়াশটি কার্যকর। এটার আরেকটি ভালো দিক হলো এটা অন্য গুলার তুলনায় ব্রণ রিমুভ করতে সক্ষম বেশি। 

আরো পড়ুনঃ ২১ সপ্তাহে বাচ্চার নড়াচড়া কেমন হয়

তাছাড়া যাদের ত্বক অতিরিক্ত বা সারাক্ষণ তেল চিপ চিপে হয়ে থাকে তাদের জন্য এই ফেসওয়াস টা অত্যন্ত কার্যকরী হতে পারে। তো এর থেকেও ভালো আর একটা বা সবথেকে ভালো একটা ফেসওয়াশ রয়েছে বিশেষ করে ছেলেদের জন্য। এ পর্যায়ে আমরা ওইটা সম্পর্কে আলোচনা করব।

মোছট্যাক ফেইসওয়াশ 

এই ফেসওয়াশ টিকে সবথেকে সেরা বা অন্যান্য ফেসের তুলনায় সব থেকে ভালো বলার বিশেষ কিছু কারণ রয়েছে। তো এগুলা এখন আমি তুলে ধরার চেষ্টা করব। এটাকে এক নাম্বার বলার প্রথম একটি কারণ হলো এটি প্রায় সকল স্ক্রিনে ব্যবহার করা যায়। অনেকের দেখা যায় ফেস এর বিভিন্ন জায়গায় তৈলাক্ত হয়ে থাকে, আবার অনেকের ব্রণের সমস্যা তাই সবগুলো সমস্যার সমাধানের জন্য আপনি এই ফেসওয়াস টি ব্যবহার করতে পারেন।

আরো পড়ুনঃ  অয়েলি স্কিনের জন্য কোন ফেসিয়াল ভালো হবে

ব্যবহারের ফলে আপনার ত্বকের ব্রণ কন্ট্রোল হবে বা ব্রণ চিরতরে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে। আর ত্বকের যেইসব যায়গায় অতিরিক্ত তৈলাক্ত ওইসব যায়গা কে ড্রাই করবে এবং যেসব যায়গা অতিরিক্ত ড্রাই সেসব যায়গাকে আগের তুলনায় তৈলাক্ত করে দিবে।

আরো পড়ুনঃ এন্টিফাঙ্গাল সাবান এর নাম

তাছাড়া যাদের ত্বক অতিরিক্ত খসখসে হয়ে থাকবে তারা যদি এই ফেসওয়াসটা একবার ব্যবহার করেন তাহলে ১২ ঘন্টা পর্যন্ত আপনার ফেস ময়েশ্চার থাকবে এবং একটি কুলিং অনুভূতি পাবেন। 

Leave a Comment