No risk pill খাওয়ার নিয়ম – No risk pill এর কাজ কি

আসসালামু আলাইকুম, প্রিয় পাঠকবৃন্দ  আশা করছি সকলে ভালো আছেন এবং সুস্থ আছেন। আজকের স্বাস্থ্য বিষয়ক আর্টিকেলে আপনাকে স্বাগতম। আজকের আর্টিকেলের বিষয় হলো No risk pill খাওয়ার নিয়ম, এর কাজ কি এবং কেন খায় সেই সাথে এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সম্পর্কে আলোচনা। এ সকল প্রশ্নের সমাধান আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে প্রকাশ করব। 

No risk pill খাওয়ার নিয়ম

আশা করছি আপনার মূল্যবান সময়টুকুর সঠিক ব্যবহার হবে। তো চলুন আর বেশি কথা না বাড়িয়ে আজকের বিষয়বস্তু নিয়ে আলোচনা শুরু করা যাক। 

পেজ সূচিপত্রঃ No risk pill খাওয়ার নিয়ম – No risk pill এর কাজ কি

  • No risk pill খাওয়ার নিয়ম
  • No risk pill এর কাজ কি
  • No risk pill কেন খায়
  • No risk pill এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া
  • শেষ কথাঃ No risk pill খাওয়ার নিয়ম – No risk pill এর কাজ কি

No risk pill খাওয়ার নিয়ম

কিছু কিছু ওষুধ রয়েছে যেগুলো স্বতন্ত্র রোগ নিরাময়ে ব্যবহৃত হয়ে থাকে। এ সকল ওষুধ অন্য কোন রোগ নিরাময়ে ব্যবহার হয় না। ঠিক তেমনি ওষুধ হলো নো রিস্ক পিল বা জন্মনিরোধক বড়ি। অনাকাঙ্ক্ষিত বা অনিচ্ছাকৃত  গর্ভপাত নিরোধ করার জন্য No risk pill সেবন করা হয়। একে ইমারজেন্সি পিলও বলা হয়। যা শুধুমাত্র মহিলাদের জন্যই ব্যবহার করা হয়। No risk pill বা জন্মনিরোধক কি সেটা সম্পর্কে আগে ধারণা নেয়া যাক। এটি এমন একটি মেডিসিন যেটি মিলনের পর সেবন করলে সন্তান ভূমিষ্ঠ হতে পারে না এমনকি ভ্রুণ নষ্ট হয়ে যায়।

অনেকে আছেন সন্তান নিতে চান না কিন্তু মিলন করেন। এমন ইচ্ছায় অনিচ্ছায় বা আকস্মিকভাবে শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন।  আর এই শারীরিক সম্পর্ক করার পর ভ্রুণ নষ্ট করার জন্য জন্ম নিরোধক পিল নিয়ে থাকেন। একটি মূলত নারীদের সেবন করতে হয়। তবে এটি খাওয়ার নিয়ম অনেকেই জানেন না, চলুন জেনে নেয়া যাক এর ব্যবহার বিধি। No risk pill কে অনেক সময় মর্নিং আফটার (Morning after pill)পিল বলে। তার মানে এই নয় যেটা সকালেই সেবন করতে হবে।

নো রিস্ক পিল যেহেতু একটি ইমারজেন্সি পিল তাই এটি সেবন  করতে সাবধানতা অবলম্বন করা উচি।  সহবাসের ৫৫ ঘণ্টা পর খাওয়া যেতে পারে অথবা 12 ঘন্টা পর।  অনিরাপদ শারীরিক সম্পর্কের ৭২ ঘন্টা বা  তিন দিনের মধ্যে সেবন করা যায়। তবে ৭২ ঘন্টা বা তিন দিনের মধ্যে সেবন করা উত্তম। যদি একেবারেই ঝুঁকি নিতে না চান সেক্ষেত্রে যৌন মিলনের ১২ ঘন্টা পর সেবন করতে পারেন। আরো একটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হলো এটি একটি ঋতু চক্রে একটি পিল সেবন করতে হবে। তবে একটি কথা মাথায় রাখতে হবে সেবনের পূর্বে অবশ্যই প্যাকেটের নির্দেশনা দেখে নিতে হবে এবং সে অনুযায়ী সেবন করতে হবে। 

No risk pill এর কাজ কি

যে কোন ওষুধ সেবনের পূর্বে সে ওষুধ সম্পর্কে ধারণা রাখা একান্ত প্রয়োজন। নয়তো সে সকল ওষুধ সম্পর্কে অবগত না হয়ে সেবনের ফলে স্বাস্থ্য ঝুকি থাকতে পারে। ঠিক তেমনি আজকের আলোচিত বিষয়   No risk pill. তো চলুন জেনে নেই। No risk pill একটি হরমোনাল ওষুধ। যা ডিম্বাশয়  থাকে ডিম্বাণু নিঃসরণ, ওভুলেশনের প্রক্রিয়া পিছিয়ে দেয় বা নিষিক্ত ডিম্বাণুকে জরায়ুতে প্রতিস্থাপিত বা সঞ্চালিত হতে বাধা দেয়। 
মিলনের ৭২ থেকে ১২০ ঘণ্টার মধ্যে এই পিল সেবনের ফলে গর্ভপাত রোধ করে।  সেই সাথে ডিম্ব স্ফুটনের বা ওভুলেশনের সময়কে পিছিয়ে দেয়। এর ফলে শুক্রাশয় গর্ভ সঞ্চার করার সুযোগ পায় না এবং জরায়ুতে তা নষ্ট হয়ে যায়। আর এভাবেই এটি কাজ করে এবং অনিরাপদ অনিচ্ছাকৃত গর্ভপাত ঠেকাই। একটি কথা মনে রাখতে হবে এটি কিন্তু নিয়মিত ব্যবহার করা ঠিক নয়। এটি একটি হরমোনাল ওষুধ। নো রিস্ক পিল জন্মনিয়ন্ত্রণের জন্য ব্যবহৃত হয় না বরং  যৌন মিলনের পর ডিম্বাশয় কে ধ্বংস করে যা গর্ভপাত নিরোধ করে। 

No risk pill কেন খায়

নো রিস্ক পিল সম্পর্কে অনেকে অবগত নন। এই পিল কেন সেবন করা হয় সে বিষয় নিয়ে জানা যাক। এটি একটি জন্মনিরোধক বড়ি যা অনিরাপদ গর্ভপাত  প্রতিরোধ করে। যারা অনিরাপদ বা অনিচ্ছাকৃত যৌন মিলন করে ফেলে তাদের জন্য এই পিল ব্যাবহার করা হয়। 
No risk pill খাওয়া হয় যখন অনিচ্ছাকৃত অথবা অনিরাপদ মিলন করে ফেলে তখন গর্ভপাত ঠেকানোর জন্য এই পিল খাওয়া হয়। এই পিল সেবনের ফলে শুক্রাশয় জরায়ুতে নষ্ট হয়ে যায়। শুক্রাশয় গর্ভে সঞ্চালন না হয়ে নষ্ট হয়ে যায়। 
উপরের আলোচনায় বোঝা যাচ্ছে যে সহবাস করলেও পিল সেবনের ফলে শুক্রাশয় ধ্বংস হয়ে যায়।

No risk pill এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

No risk pill একটি জন্মনিরোধক ট্যাবলেট যা সেবনের  ফলে অনাকাঙ্ক্ষিত গর্ভপাত রোধ করা যায় যা সম্পর্কে আগেই জেনেছি। এটি কখন ব্যবহার করা যাবে কিভাবে ব্যবহার করা হয় ইত্যাদি সম্পর্কে জেনেছি। এখন আমরা জানবো এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে। 
প্রায় সব জিনিসেরই একটি ভাল দেখে খারাপ দিক থাকে। মেডিসিন বা ওষুধও তার ব্যতিক্রম নয়। আমরা জীবনের বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ধরনের অসুখের সম্মুখীন হয়।  আর এ সকল অসুখ থেকে মুক্তির জন্য দৈনন্দিন জীবনে সুস্থ ও সুন্দর জীবন যাপনের জন্য প্রায়শই বিভিন্ন ধরনের ওষুধ সেবন করে থাকি। আর এই সকাল ওষুধের ভালো ফলাফল পেয়ে থাকি। তবে এর কিছু সাইড এফেক্ট বা পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াও থাকে। যে মানব শরীরের উপরে প্রভাব ফেলে থাকে।
No risk pill ও তার বাইরে নয়।  উক্ত ওষুধটি সেবনের ফলে মহিলাদের শরীরে যে সকল আলামত লক্ষ্য করা যায় তা উল্লেখ করা যাক। 
No risk pill যেহেতু জন্ম নিরোধ করে সেহেতু এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া অবশ্যই রয়েছে। এটা শুধু জন্মনিরোধের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়। এটি দীর্ঘমেয়াদি কোন ওষুধ নয় যে দীর্ঘদিন ধরে সেবন করতে হবে। তবে এটি যদি দীর্ঘদিন বা প্রায়শই সেবন করা হয় সে ক্ষেত্রে বমি বমি ভাব অনুভূত হয়, স্তনে ব্যথা অনুভূত হতে পারে,ওজন বৃদ্ধি পেতে পারে।কখনো কখনো মাথাব্যথা হতে পারে এমনকি পিরিয়ডে ব্যাঘাত ধরতে পারে।  অনেক সময় অনিয়মিত পিরিয়ড হতে পারে। সেই সাথে পেটে ব্যথা হতে পারে। পরবর্তীতে সন্তান ধরনের ব্যাঘাত করতে পারে।এ কারণে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে সেবন করা উচিত।

শেষ কথাঃNo risk pill খাওয়ার নিয়ম ও এর কাজ

প্রিয় পাঠক, নো রিস্ক পিল খাওয়ার নিয়ম, এর কার্য পদ্ধতি,এটি সেবনের নিয়ম, এটি কেন সেবন করা হয়, এরপর সব প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে আশা করি আজকের আলোচনা থেকে সঠিক তথ্য পেয়েছেন। এই আর্টিকালে আমি উল্লেখ করেছি জন্মনিরোধ পিল সেবনের নিয়মাবলী এবং এটি কেন খাওয়া হয়? সেই সাথে উল্লেখ করেছি এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে  এবং এটি মানব শরীরের ওপর কেমন প্রভাব ফেলবে সে সম্পর্কে।

আরো পড়ুনঃ ফাস্ট ভেট ট্যাবলেট কি কাজ করে জেনে নিন

এটি সেওনের ফলে কি কি সমস্যা দেখা দিতে পারে সে সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। আমি রিকুমেন্ট করব যেহেতু এটি দীর্ঘমেয়াদি ব্যবহারের কোন ওষুধ নয় তাই এটি ব্যবহারে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে এবং সেই সাথে সকল প্রকার ওষুধ সেবনের ক্ষেত্রে ভালোভাবে জেনে নিতে হবে। এবং নো রিস্ক পিল সেবনের পূর্বে অবশ্যই চিকিৎসকের মতামত নিতে হবে।যথাসম্ভব  পিল সেবন থেকে বিরত থাকার চেষ্টা করতে হবে।

আরো পড়ুনঃ লেবার পেইন উঠানোর উপায় জেনে নিন

এটি সেবনে অনেক স্বাস্থ্য ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়। তাই এটি সেবনের ক্ষেত্রে বিশেষ সর্তকতা অবলম্বন করতে হবে।অতিরিক্ত সেবনের ফলে পরবর্তীতে স্বাস্থ্যের অবনতি হতে পারে। আশা করি আজকের আর্টিকেল থেকে নো রিস্ক পিল সম্পর্কিত তথ্য সুন্দরভাবে বোঝাতে সক্ষম হয়েছি এবং আপনারা উপকৃত হয়েছেন। আপনার মহামূল্যবান সময় দিয়ে আজকের আর্টিকেল পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি। সবশেষে আপনার সুস্বাস্থ্য এবং সুস্থ জীবনের প্রার্থনা করে আজকের প্রতিবেদনটি শেষ করছি। ধন্যবাদ সবাইকে।

Leave a Comment